স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তিকে প্রতিহত করে বিজয়ধারা অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার করতে হবেঃ ঢাবি উপাচার্য

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে ০১ ডিসেম্বর ২০১৮ শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বর্ণাঢ্য ‘বিজয় র‌্যালি’ বের করা হয়। বিজয় র‌্যালি শেষে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের স্বাধীনতা চত্বরে আয়োজিত এক সমাবেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেছেন, স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি দেশে আবার ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এসব ষড়যন্ত্র প্রতিহত করে বিজয়ের ধারা   অব্যাহত রাখার জন্য তরুণ প্রজন্মকে অঙ্গীকার করতে হবে।

উপাচার্য এর আগে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে অপরাজেয় বাংলার পাদদেশ থেকে বিজয় র‌্যালির উদ্বোধন করেন। র‌্যালিটি টিএসসি হয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের স্বাধীনতা চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. কামাল উদ্দীন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভিন্ন হলের প্রভোস্টসহ বিপুল সংখ্যক শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী ও কর্মকর্তা-কর্মচারী র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন। 

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অমর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি বলেন, এইস্থানে বঙ্গবন্ধু ১৯৭১ সালে ঐতিহাসিক ৭মার্চের ভাষণটি প্রদান করেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর সেই ভাষণ ইতোমধ্যেই ‘বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য’ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। এই ভাষণ যেমন একাত্তরে বাঙালি জাতিকে উদ্বুদ্ধ করেছিল, তেমনি ভবিষ্যতে বিশ্বের সকল নির্যাতিত, নিপীড়িত, অবহেলিত ও বঞ্চিত জনগোষ্ঠীকে অনুপ্রাণিত করবে। তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মের মাঝে এখন মুক্তিযুদ্ধের গান ও চেতনা সঞ্চারিত হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনা এবং উদার, নৈতিক ও মানবিক মূল্যবোধ ধারণ করে সামনে এগিয়ে যাওয়ার জন্য তিনি সকলের প্রতি আহবান জানান । 

পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংগীত বিভাগের উদ্যোগে জাতীয় সংগীত ও দেশাত্মবোধক গান পরিবেশিত হয়।
----------

(মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম)
উপ পরিচালক 
জনসংযোগ দফতর
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়    

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে ০১ ডিসেম্বর ২০১৮ শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের নেতৃত্বে ক্যাম্পাসে এক বর্ণাঢ্য ‘বিজয় র‌্যালি’ বের করা হয়। র‌্যালি শেষে সোহরাওয়ার্দী  উদ্যানের স্বাধীনতা চত্বরে এক সমাবেশে উপাচার্য বক্তব্য রাখেন। (ছবি: ঢাবি জনসংযোগ)